সিটিং সার্ভিস বিড়ম্বনাঃ জনগণকে জিম্মি করে এবং সরকারের সহযোগিতায় আবার সফল বাস মালিকরা

ডেস্ক রিপোর্ট: পোস্টকার্ড | প্রকাশিত: ১৯ এপ্রিল ২০১৭, ০৮:১৮ অপরাহ্ন
seating-service

জনগণকে জিম্মি করে এবং সরকারের সহযোগিতায় নিজেদের অবৈধ দাবিকে বৈধ করার পথে আবার সফল হলো বাস মালিকরা। প্রথমে নিজেরা ঘোষণা দিয়ে সিটিং সার্ভিস বন্ধ করে তারপর গাড়ির কৃত্রিম সংকট তৈরী করে রাজধানীতে সিটিং  সার্ভিসের নামে অতিরিক্ত ভাড়া আদায়ের পথকে সুগম করলো পরিবহন মালিকরা। আর পুরো ঘটনায় সরকার নির্লিপ্ত থেকে তাদের ষড়যন্ত্রে সমর্থন করে গেছে।  

আজ বাস মালিকদের সাথে বৈঠক শেষে ঢাকা শহরে সিটিং  সার্ভিস আরো ১৫ দিন চালু রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে বিআরটিএ। বিআরটিএ'র   চেয়ারম্যান বলেছেন  প্রয়োজন হলে  আইনী কাঠামোর মধ্যে এনে   সিটিং সার্ভিস চালানোর অনুমতি দেওয়া হবে।


উল্লেখ্য গত ১৬ তারিখ থেকে ঢাকা শহরে সিটিং  সার্ভিস বন্ধের ঘোষণা দেয় পরিবহন মালিক সমিতি। দীর্ঘদিন  ধরে অনুমোদনহীন এই সিটিং সার্ভিস চালিয়ে আসছিল বাস মালিকরা। কিন্তু তাতে  নানা সময়ে বাঁধার মুখে পরতে হতো তাদের। ফলে তার চাইছিল এটাকে আইনগত বৈধতা দিতে।  আর সিটিং সার্ভিস বন্ধ করে দিয়ে তারপর নিজেদের গাড়িগুলোকে রাস্তায় না নামিয়ে গত দুই-তিন  দিনে   রাজধানীতে চরম দুর্ভোগ সৃষ্টি করে মালিকরা। তারপরে যাত্রীদের কল্যাণের নামে আবার এটকে  চালু করার সিদ্ধান্ত নিল মালিক ও সরাকার। যদিও বিআরটিএ বলছে ১৫ দিনের  জন্য সাময়িকভাবে সিটিং সার্ভিস চালু করা হয়েছে। তবে এটাকে  পরবর্তীতে সিটিং সার্ভিসকে বৈধতা দেবার কৌশল বলেই মনে করছেন বিশিষ্টজনেরা।